যৌবন ও সম্পদের অপব্যয়

যৌবন ও সম্পদের অপব্যয়

সাম্প্রতিক বিষয়াদি

কিছু যুবক এমন আছে যারা তেমন ধনীর সন্তান নয়, তাদের পিতা-মাতা হয়তাে খুব কষ্টে সংসার চালান। কিন্তু ঐ যুবকরা দায়িতজ্ঞান-হীনের মত অবলীলায় টাকা-পয়সা খরচ করে বেড়ায়। টাকা-পয়সার জন্য তারা পিতা-মাতাকে অবাঞ্ছিত চাপ দিয়ে পেরেশান করে। পিতা-মাতা মনের কষ্ট বুকে চাপা দিয়ে ঐ সন্তানদের দাবীমত টাকা-পয়সার জোগান দেন আর ঐ দায়িত্বজ্ঞানহীন সন্তানেরা বড়লােকী চালে সেই টাকা-পয়সা। উড়ায়, ফুর্তি করে। কিছু যুবক এমন আছে যারা লেখা-পড়াও করে না আবার কোন আয়-উপার্জনের কাজেও লাগে না, খাওয়ার সময় খেতে আসে, বাকি। সময় বন্ধু-বান্ধব নিয়ে আড্ডা দিয়ে বেড়ায়, কিংবা ভবঘুরের মত ঘুরে । বেড়ায়।

এ প্রসঙ্গে যুবকদের কয়েকটা কথা মনে রাখা উচিত:

(এক) সন্তান বালেগ হওয়ার পর তার ভরণ-পােষণ দেয়া পিতা-মাতার আইনী দায়িত্ব নয়, এ ব্যাপারে পিতা-মাতা যতটুকু করেন, যা ভরণ-পােষণ বা টাকা-পয়সা দেন সবটুকুই তাদের অনুগ্রহ। অতএব টাকা-পয়সার ব্যাপারে পিতা-মাতাকে কোনরূপ চাপ দেয়া তাদের জন্য বৈধ নয়। পিতা-মাতা। তাদেরকে যতটুকু যা দেন তাতেই সন্তুষ্ট থাকা চাই, তাতেই পিতা-মাতার শােকর আদায় করা চাই। যে ব্যক্তি বান্দার শােকর আদায় করল না, সে আল্লাহরও শােকর আদায় করল না। হে যুবক, অকৃতজ্ঞ বান্দা হয়াে না।

(দুই) সন্তান তার পিতা-মাতার সঙ্গে যেমন আচরণ করবে, ঐ সন্তানও একদিন পিতা-মাতা হবে, তখন তাদের সন্তানও তাদের সঙ্গে অনুরূপ আচরণ। করবে। অতএব যুবকদের উচিত নিজেদের ভবিষ্যতের কথা স্মরণ রেখে সাবধানে পিতা-মাতার সঙ্গে আচরণ করা। যেন নিজেদের আচরণের জন্য নিজেদেরই ভবিষ্যতে অশান্তির মধ্যে পড়তে না হয়। হে যুবক! সময় থাকতে বুঝার চেষ্টা কর।

| (তিন) যৌবনে অপব্যয়ের অভ্যাস গড়ে তুললে ভবিষ্যতে যখন নিজেরা নিজেদের দায়িত্বে চলা শুরু করবে, তখন এই অভ্যাস ছাড়া কঠিন হয়ে। দাড়াবে তখন পুরাতন অভ্যাস অনুযায়ী চলার মত নিজেদের উপার্জন গড়ে

উঠলে সেই ভােগান্তি পিতা-মাতা নয় বরং তােমাদের নিজেদেরকেই ভুগতে হবে। আর যদি ভবিষ্যতে সচ্ছল হতেও পার, তবুও অপব্যয়ের অভ্যাস গােনাহের অভ্যাস, গােনাহ থেকে বেঁচে থাকো, তােমাদের জীবন সুন্দর হবে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *