শােয়ার সময় যে দুআ পাঠ করলে শয়তান আপনার কাছে আসতে সক্ষম হবে না।

শােয়ার সময় যে দুআ পাঠ করলে শয়তান আপনার কাছে আসতে সক্ষম হবে না।

ইবাদত

শােয়ার সময় মানুষের মনে নানান রকম দুশ্চিন্তা আসতে পারে। এক দুশ্চিন্তার মধ্যে একটা হল ঘুমের মধ্যে কোন দুর্ঘটনা ঘটবে না তাে? ঘুমের মধ্যে আমার জীবনের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হবে না তাে? এরূপ দুশ্চিন্তা থেকে মুক্তির জন্য এবং জীবন-মরণ বিষয়ে নিরাপত্তা লাভের জন্য আল্লাহর আশ্রয়। গ্রহণ ব্যতীত অন্য কোনাে পন্থা নেই। কারণ ঘুমের মধ্যে নিজের কোনাে ক্ষমতা চেতনা কিছুই থাকে না। তাই আল্লাহর উপরই আশ্রয় গ্রহণ করা শ্রেয়। এজন্য ঘুমের সময় এই দুআ পড়ে নিতে হয়।

(اللهم باسمك أموت وأځیی. (رواه الترمذي في كتاب الدعوات 34۱۷ وقال : حديث حسن صحيح)

অর্থাৎ, হে আল্লাহ! তােমার নামেই আমি মৃত্যু বরণ করি এবং জীবন লাভ করি। (তিরমিযী)

ঘুমের মধ্যে একটা দুশ্চিন্তা এরূপও হয় যে, ঘুমের মধ্যে কোন দুঃসপ্ন দেখব না তাে? ঘুমের মধ্যে শয়তান আশ্রয় করবে না তাে? তাই শােয়ার সময় আয়াতুল কুরছী পাঠ করার সুন্নাত রাখা হয়েছে। রেওয়ায়েতে এসেছে

إذا أويت إلى فراشك فاقرأ اية الكرسي الله لا إله إلا هو الحى القيوم اختى تختم الآية فإنك لن يزال عليك من الله حافظ ولا يبك

شيطان حتى تصبح. رواه البخاري في كتاب الكفالة – باب إذا وكل رجلا فترك الوكيل شيئا إلخ ۲۳۱۱.

অর্থাৎ, যখন তুমি বিছানায় যাবে, তখন আয়াতুল কুরছী ) শুরু থেকে আয়াত শেষ পর্যন্ত পাঠ করবে। তাহলে সকাল পর্যন্ত। আল্লাহর পক্ষ থেকে তােমার নিকট হেফাজতকারী থাকবে এবং শয়তান তােমার কাছে আসতে সক্ষম হবে না। (বােখারী)।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *